All books

সুনানে ইবনে মাজাহ (০ টি হাদীস)

২৭ যবেহ করা ৩১৬২ - ৩১৯৯

২১/১৪. অধ্যায়ঃ

খচ্চরের গোশ্‌ত

৩১৯৭

সুনানে ইবনে মাজাহ

অধ্যায় : যবেহ করা

হাদীস নং : ৩১৯৭


حَدَّثَنَا عَمْرُو بْنُ عَبْدِ اللهِ حَدَّثَنَا وَكِيعٌ عَنْ سُفْيَانَ ح و حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ يَحْيَى حَدَّثَنَا عَبْدُ الرَّزَّاقِ حَدَّثَنَا الثَّوْرِيُّ وَمَعْمَرٌ جَمِيعًا عَنْ عَبْدِ الْكَرِيمِ الْجَزَرِيِّ عَنْ عَطَاءٍ عَنْ جَابِرِ بْنِ عَبْدِ اللهِ قَالَ كُنَّا نَأْكُلُ لُحُومَ الْخَيْلِ قُلْتُ فَالْبِغَالُ قَالَ لَا

জাবির বিন আবদুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমরা ঘোড়ার গোশ্‌ত আহার করতাম। আমি (আতা) বললাম, খচ্চরের গোশ্‌ত? তিনি বলেন, না। [৩১৯৭]

[৩১৯৭] সহীহুল বুখারী ৪২১৯, ৫৫২০, ৫৫২৪, মুসলিম ১৯৪১, তিরমিযী ১৭৯৩, নাসায়ী ৪৩২৭, ৪৩২৮, ৪৩৩৯, ৪৩৩০, ৪৩৪৩, আবূ দাউদ ৩৭৮৮, ৩৭৮৯, ৩৮০৮, আহমাদ ১৪০৪১, ১৪৪২৬, ১৪৪৭৪, ১৪৪৮৬, ১৪৭১৫, দারেমী ১৯৯৩। তাহকীক আলবানীঃ সহীহ।

৩১৯৮

সুনানে ইবনে মাজাহ

অধ্যায় : যবেহ করা

হাদীস নং : ৩১৯৮


حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْمُصَفَّى، حَدَّثَنَا بَقِيَّةُ، حَدَّثَنِي ثَوْرُ بْنُ يَزِيدَ، عَنْ صَالِحِ بْنِ يَحْيَى بْنِ الْمِقْدَامِ بْنِ مَعْدِيكَرِبَ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ جَدِّهِ، عَنْ خَالِدِ بْنِ الْوَلِيدِ، قَالَ نَهَى رَسُولُ اللَّهِ ـ صلى الله عليه وسلم ـ عَنْ لُحُومِ الْخَيْلِ وَالْبِغَالِ وَالْحَمِيرِ ‏.‏

খালিদ ইবনুল ওয়ালীদ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ঘোড়ার গোশ্‌ত, খচ্চরের গোশ্‌ত ও গাধার গোশ্‌ত খেতে নিষেধ করেছেন। [৩১৯৮]

[৩১৯৮] নাসায়ী ৪৩৩১, ৪৩৩২, আবূ দাউদ ৩৭৯০, যইফাহ ১১৪৯। তাহকীক আলবানীঃ যইফ। উক্ত হাদিসের রাবী ১. মুহাম্মাদ ইবনুল মুসাফফা আল-হিমসী সম্পর্কে আবু হাতিম আর-রাযী ও ইমাম নাসাঈ বলেন, তিনি সত্যবাদী। ইবনু হিব্বান তাকে সিকাহ বললেও অন্যত্র বলেন, তিনি হাদিস বর্ণনায় ভুল করেন। ইবনু হাজার আল-আসকালানী বলেন, তিনি সত্যবাদী তবে হাদিস বর্ণনায় সন্দেহ ও তাদলীস করেন। (তাহযীবুল কামালঃ রাবী নং ৫৬১৩, ২৬/৪৬৫ নং পৃষ্ঠা) ২. সালিহ বিন ইয়াহইয়া ইবনুল মিকদাম বিন মা'দীকারিব সম্পর্কে আবু হাতিম বিন হিব্বান বলেন, তিনি হাদিস বর্ণনায় ভুল করেন। আবু মুহাম্মাদ বিন হাযম বলেন, তিনি মাজহুল বা অপরিচিত। ইবনু হাজার আল-আসকালানী বলেন, তিনি যাচাই-বাচাই ছাড়া হাদিস গ্রহন করেন ও তা বর্ণনা করেন। ইমাম বুখারী বলেন, তার ব্যাপারে সমালোচনা রয়েছে। (তাহযীবুল কামালঃ রাবী নং ২৮৪৪, ১৩/১০৫ নং পৃষ্ঠা) ৩. ইয়াহইয়া ইবনুল মিকদাম সম্পর্কে ইবনু হাজার আল-আসকালানী বলেন, তার অবস্থা সম্পর্কে অজ্ঞাত। ইমাম যাহাবী তাকে সিকাহ বলেছেন। তাহরীরু তাকরীবুত তাহযীব এর লেখক বলেন, তিনি মাজহুল বা অপরিচিত। (তাহযীবুল কামালঃ রাবী নং ৬৯২৮, ১৩/৫৭০ নং পৃষ্ঠা)